,



জাতীয় সংসদের লুই আই কানের নকশা দেখলেন প্রধানমন্ত্রী

বাঙালী কণ্ঠ নিউজঃ লুই আই কানের তৈরি করা সংসদ ভবনের নকশা দেখলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সংসদের দক্ষিণ প্লাজায়  সোমবার নকশাটি তাকে দেখানো হয়। ভবনের নকশাটি দীর্ঘদিন ধরে প্যানসেলভেনিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে সংরক্ষিত ছিল। সরকারের জোর পদক্ষেপের ফলে ভবনের নকশা ও ফটোগ্রাফ সংবলিত সফটকপির ফ্লাস ড্রাইভ ২০১৭  সালের ৪ জুলাই  সংসদ সচিবালয়ে আনা হয়। এ সময় স্থাপত্য অধিদপ্তরের প্রধান স্থপতি কাজী গোলাম নাসির ভবনের স্থাপত্য সম্পর্কে প্রধানমন্ত্রীকে বিস্তারিত জানান। পরিদর্শনকালে প্রধানমন্ত্রী নকশা সংরক্ষণের জন্য প্রয়োজনীয় দিক নির্দেশনা দেন।

এ সময় জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী এমপি, সংসদের চিফ হুইপ আ, স, ম ফিরোজ এমপি, গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন এমপি, হুইপ ইকবালুর রহিম এমপি, সংসদের সিনিয়র সচিব ড. আবদুর রব হাওলাদার, গৃহায়ণ ও গণপূর্ত সচিব শহিদুল্লাহ খন্দকার, গণপূর্ত অধিদপ্তরের প্রধান প্রকৌশলী মো. রফিকুল ইসলাম, প্রধানমন্ত্রীর একান্ত সচিব সাজ্জাদ হোসেন, প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব এহসানুল করিমসহ প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় ও জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

বাংলাপিডিয়ার তথ্যানুযায়ী, ১৯৫৯ সালে প্রথম ঢাকায় জাতীয় সংসদ ভবন কমপ্লেক্সটির পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়। তৎকালীন সামরিক সরকার বর্তমান সংসদ ভবনটি নির্মাণের সিদ্ধান্ত নেয়।

তখনকার খ্যাতনামা স্থপতি লুই কান ভবন কমপ্লেক্সটির নকশা প্রণয়নের জন্য প্রাথমিকভাবে নির্বাচিত হন। তাকে সরাসরি কাজে নিযুক্ত না করে ভবনের প্রাথমিক নকশা প্রদানের জন্য বলা হয় ও ১৯৬২ সালের মার্চ মাসে তিনি আনুষ্ঠানিক দায়িত্ব পান। ১৯৬১ সালে বর্তমান মানিক মিয়া অ্যাভিনিউয়ের উত্তর পাশে ২০৮ একর জমি পাকিস্তানের দ্বিতীয় রাজধানী প্রকল্পের জন্য অধিগ্রহণ করা হয় ও ১৯৬২ সালে মূল নকশা প্রস্তুত হয়।

১৯৬৪ সালে এক কোটি ৫০ লাখ ডলারের অনুমিত ব্যয় ধরে কমপ্লেক্সটির নির্মাণকাজ শুরু হয়। সমস্ত সুবিধাসহ ৩ কোটি ২০ লাখ ডলারের পরিবর্তিত ব্যয়ে কমপ্লেক্সটির নির্মাণকাজ শেষ হয় ১৯৮২ সালে।

লুই কান পেনসিলভেনিয়া ইউনিভার্সিটি থেকে স্থাপত্যে গ্রাজুয়েশন করেন। ১৯৭৪ সালের ১৭ মার্চ ৭৩ বছর বয়সে লুই আই কান মৃত্যুবরণ করেন।

Print Friendly, PDF & Email

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর