ঢাকা , বুধবার, ২৪ জুলাই ২০২৪, ৮ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

নায়ক ফারুকের স্মৃতিচারণ করে যা বললেন তারকারা

সময়ের হিসাবে ৮০৩ দিন পর দেশে ফিরেছেন ঢাকাই সিনেমার বরেণ্য অভিনেতা ও ঢাকা ১৭ আসনের সংসদ সদস্য আকবর হোসেন পাঠান ফারুক। ২০২১ সালের ৪ মার্চ থেকে সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালের চিকিৎসাধীন ছিলেন ঢাকাই সিনেমার মিয়া ভাই। মঙ্গলবার সকাল ৭টা ৪০ মিনিটের ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের একটি বিশেষ ফ্লাইটে মরদেহ দেশে পৌঁছায় তাঁর। এই হিসাবে ৮০৩ দিন ফিরলেন ফারুক। সেখান থেকে শেষবারের মতো রাজধানীর উত্তরার বাড়িতে ফিরলেন নিথর দেহে। এরপর সর্বস্তরের মানুষের শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে নেওয়া হয় ফারুকের মরদেহ। সেখানে রাখা হয়েেেছ ১১টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত। শহীদ মিনারে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে দুপুর ২টায় মরদেহ নেওয়া হয় এফডিসিতে। বাংলা চলচ্চিত্রের ‘মিয়া ভাই’ খ্যাত চিত্রনায়ক বীর মুক্তিযোদ্ধা ও সংসদ সদস্য গত সোমবার সকালে না ফেরার দেশে পাড়ি জমান এই অভিনেতা। তাঁর মৃত্যুতে আরও একজন অভিভাবক হারাল চলচ্চিত্র ইন্ডাস্ট্রি। তাই তাঁর মৃত্যুতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক পেজে শোকবার্তা ও স্মৃতিচারণ করেছেন ঢালিউডের তারকারা। নব্বই দশকের জনপ্রিয় নায়ক ওমর সানী ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে লেখেন, ‘আল্লাহ আমাদের লিজেন্ড ফারুক ভাইকে জান্নাত নসিব করুন। আমিন।’
রাজধানীর তেজগাঁওয়ে ফারুকের জানাজার নামাজ ও শোক বইয়ে শোকবার্তা লিপিবদ্ধ শেষে শাকিব খান বলেন, ফারুক ভাই সংসদ সদস্য হওয়ার পরে আমি তাঁকে বলতাম আমার ভাবতেও ভাল লাগে যে আমি এলাকায় থাকি সে এলাকার এমপি হলেন আমার ভাই। ফারুক ভাইয়ের চলে যাওয়ায় চলচ্চিত্রের মানুষ বিশাল একজন গার্জিয়ানকে হারালো। অনেকদিন ধরেই ফারুক ভাই কষ্ট পাঁচ্ছিলেন। তাঁর পরিবারও সাফার করছিল। ভাবি বাচ্চারাও কষ্ট পাঁচ্ছিল। ফারুক ভাই কষ্ট পাঁচ্ছিলেন। আল্লাহ তাঁকে নিয়ে গেছেন। এখন আল্লাহতায়ালা তাঁকে শান্তিতে রাখুন। আল্লাপাক তাঁকে বেহেশতে  নসিব করুন।
অভিনেতা ডিপজল নায়ক ফারুকের স্মৃতিচারণ করে ফেসবুক পেজে লিখেছেন, ‘বাংলা চলচ্চিত্রের অভিনেতা সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা নায়ক ফারুক মামা মারা গেছেন। আমার অনেক কাছের মানুষ ছিলেন। সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গত সোমবার স্থানীয় সময় সকাল ১০টায় তাঁর মৃত্যু হয়েছে (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। মহান আল্লাহ রাব্বুল আলামিন তাকে জান্নাতুল ফেরদাউস নসিব করুক আমিন।’
ফারুকের সঙ্গে তোলা একটি ছবি শেয়ার করে জায়েদ খান তার ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে লিখেছেন, ‘এতক্ষণ কিছু লিখিনি কারণ মনে হয়েছে আপনি বেঁচে আছেন। কিন্তু শেষ পর্যন্ত আল্লাহর কাছে চলে গেলেন। এটা তো কথা ছিল না। বলেছিলেন জায়েদ আসতেছি আড্ডা হবে। এখনও বিশ্বাস হচ্ছে না আপনি নাই মিয়া ভাই।’
নায়ক ফারুকের স্মৃতিচারণ করে অভিনেত্রী জয়া আহসান তার ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে লেখেন, ‘বাংলাদেশের আপামর মানুষ, চলচ্চিত্র জগৎ আজ স্তব্ধ। এক অমলিন শোকের ছায়া সিনেমাপ্রেমীদের মাঝে। ফারুক ভাই চলে গেলেন। আকবর হোসেন পাঠান ফারুক নামটাই তো যথেষ্ট, নায়ক, মুক্তিযোদ্ধা, সাংসদ, তার অবদানের পূর্ণতা তার জীবনের মতোই উজ্জ্বল। সেই উজ্জ্বলতাতেই তাকে মনে রাখবো। জীবনের ওপারে, অসংখ্য কর্মে তার এক নতুন জীবন। মনের মণিকোঠায় থেকে যাবেন তিনি।’অভিভাবক হারানোর শোক অনুভব করছি উল্লেখ করে চিত্রনায়ক শাকিব খান তার ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে লিখেছেন, ‘চলে গেলেন আমাদের প্রিয় মিয়া ভাই (আকবর পাঠান ফারুক)। ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন। যতদিন তিনি সুস্থ সবল ছিলেন, ততদিন আমাকে স্নেহে আগলে রেখেছিলেন। আমার যেকোনো ভালো কাজ এবং ছবির পোস্টার কিংবা ট্রেলার রিলিজ দেখে তিনি নিজ থেকে অ্যাপ্রিসিয়েট করে গর্বিত হতেন। আমার কাছে শ্রদ্ধাভাজন এই মানুষটি ছিলেন চলচ্চিত্র অঙ্গনে প্রাজ্ঞজনদের একজন। কাজে কিংবা কাজের বাইরে এই মহান মানুষটির সাথে আমার অসংখ্য স্মৃতি। তার প্রয়াণে প্রিয় অভিনেতা হারানোর পাশাপাশি একজন অভিভাবক হারানোর শোক অনুভব করছি। ওপারে অনেক শান্তিতে থাকবেন।’
নায়ক ফারুকের স্মৃতিচারণ করে চিত্রনায়িকা অপু বিশ্বাস তার ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে লেখেন,‘ বাংলা চলচ্চিত্রের কিংবদন্তী অভিনেতা ও সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা জনাব আকবর হোসেন পাঠান ফারুক সাহেবের মৃত্যুতে আমরা গভীরভাবে শোকাহত। ওঁর সঙ্গে আমার প্রথম সিনেমা কোটি টাকার কাবিন। সবাই ওঁর জন্য দোয়া করবেন।’
চিত্রনায়ক অনন্ত জলিল তার ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে লিখেছেন, ‘প্রায় পাঁচ দশক ঢালিউডে অবদান রাখা ঢাকাই সিনেমার কিংবদন্তি চিত্রনায়ক ও ঢাকাণ্ড১৭ আসনের সংসদ সদস্য আকবর হোসেন পাঠান ফারুক (আমাদের ফারুক ভাই)। এই র্কীতিমান মহান মানুষটির প্রয়াণে গভীর শোক ও বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করছি এবং তার শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করছি।’
চিত্রনায়ক আরিফিন শুভ তার ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে লিখেছেন, ‘ভালো থাকবেন মিয়া ভাই। বাংলার সকল দর্শকের মনে চিরকাল বেঁচে থাকবেন আপনি। শ্রদ্ধা ও ভালোবাসা।’
এ ছাড়াও চিত্রনায়ক ইলিয়াস কাঞ্চন, চিত্রনায়িকা পূর্ণিমা, চিত্রনায়ক নাঈম, অভিনেতা চঞ্চল চৌধুরী, চিত্রনায়ক নিরব, অভিনেত্রী অভিনেত্রী বিজরী বরকতউল্লাহ, অভিনেতা মিশা সওদাগর, নির্মাতা সৈকত নাসির, গায়িকা আঁখি আলমগীরসহ অনেকেই ফারুকের মৃত্যুতে শোকবার্তা দিয়েছেন।

Tag :
আপলোডকারীর তথ্য

Bangal Kantha

নায়ক ফারুকের স্মৃতিচারণ করে যা বললেন তারকারা

আপডেট টাইম : ০৭:০১ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ মে ২০২৩

সময়ের হিসাবে ৮০৩ দিন পর দেশে ফিরেছেন ঢাকাই সিনেমার বরেণ্য অভিনেতা ও ঢাকা ১৭ আসনের সংসদ সদস্য আকবর হোসেন পাঠান ফারুক। ২০২১ সালের ৪ মার্চ থেকে সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালের চিকিৎসাধীন ছিলেন ঢাকাই সিনেমার মিয়া ভাই। মঙ্গলবার সকাল ৭টা ৪০ মিনিটের ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের একটি বিশেষ ফ্লাইটে মরদেহ দেশে পৌঁছায় তাঁর। এই হিসাবে ৮০৩ দিন ফিরলেন ফারুক। সেখান থেকে শেষবারের মতো রাজধানীর উত্তরার বাড়িতে ফিরলেন নিথর দেহে। এরপর সর্বস্তরের মানুষের শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে নেওয়া হয় ফারুকের মরদেহ। সেখানে রাখা হয়েেেছ ১১টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত। শহীদ মিনারে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে দুপুর ২টায় মরদেহ নেওয়া হয় এফডিসিতে। বাংলা চলচ্চিত্রের ‘মিয়া ভাই’ খ্যাত চিত্রনায়ক বীর মুক্তিযোদ্ধা ও সংসদ সদস্য গত সোমবার সকালে না ফেরার দেশে পাড়ি জমান এই অভিনেতা। তাঁর মৃত্যুতে আরও একজন অভিভাবক হারাল চলচ্চিত্র ইন্ডাস্ট্রি। তাই তাঁর মৃত্যুতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক পেজে শোকবার্তা ও স্মৃতিচারণ করেছেন ঢালিউডের তারকারা। নব্বই দশকের জনপ্রিয় নায়ক ওমর সানী ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে লেখেন, ‘আল্লাহ আমাদের লিজেন্ড ফারুক ভাইকে জান্নাত নসিব করুন। আমিন।’
রাজধানীর তেজগাঁওয়ে ফারুকের জানাজার নামাজ ও শোক বইয়ে শোকবার্তা লিপিবদ্ধ শেষে শাকিব খান বলেন, ফারুক ভাই সংসদ সদস্য হওয়ার পরে আমি তাঁকে বলতাম আমার ভাবতেও ভাল লাগে যে আমি এলাকায় থাকি সে এলাকার এমপি হলেন আমার ভাই। ফারুক ভাইয়ের চলে যাওয়ায় চলচ্চিত্রের মানুষ বিশাল একজন গার্জিয়ানকে হারালো। অনেকদিন ধরেই ফারুক ভাই কষ্ট পাঁচ্ছিলেন। তাঁর পরিবারও সাফার করছিল। ভাবি বাচ্চারাও কষ্ট পাঁচ্ছিল। ফারুক ভাই কষ্ট পাঁচ্ছিলেন। আল্লাহ তাঁকে নিয়ে গেছেন। এখন আল্লাহতায়ালা তাঁকে শান্তিতে রাখুন। আল্লাপাক তাঁকে বেহেশতে  নসিব করুন।
অভিনেতা ডিপজল নায়ক ফারুকের স্মৃতিচারণ করে ফেসবুক পেজে লিখেছেন, ‘বাংলা চলচ্চিত্রের অভিনেতা সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা নায়ক ফারুক মামা মারা গেছেন। আমার অনেক কাছের মানুষ ছিলেন। সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গত সোমবার স্থানীয় সময় সকাল ১০টায় তাঁর মৃত্যু হয়েছে (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। মহান আল্লাহ রাব্বুল আলামিন তাকে জান্নাতুল ফেরদাউস নসিব করুক আমিন।’
ফারুকের সঙ্গে তোলা একটি ছবি শেয়ার করে জায়েদ খান তার ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে লিখেছেন, ‘এতক্ষণ কিছু লিখিনি কারণ মনে হয়েছে আপনি বেঁচে আছেন। কিন্তু শেষ পর্যন্ত আল্লাহর কাছে চলে গেলেন। এটা তো কথা ছিল না। বলেছিলেন জায়েদ আসতেছি আড্ডা হবে। এখনও বিশ্বাস হচ্ছে না আপনি নাই মিয়া ভাই।’
নায়ক ফারুকের স্মৃতিচারণ করে অভিনেত্রী জয়া আহসান তার ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে লেখেন, ‘বাংলাদেশের আপামর মানুষ, চলচ্চিত্র জগৎ আজ স্তব্ধ। এক অমলিন শোকের ছায়া সিনেমাপ্রেমীদের মাঝে। ফারুক ভাই চলে গেলেন। আকবর হোসেন পাঠান ফারুক নামটাই তো যথেষ্ট, নায়ক, মুক্তিযোদ্ধা, সাংসদ, তার অবদানের পূর্ণতা তার জীবনের মতোই উজ্জ্বল। সেই উজ্জ্বলতাতেই তাকে মনে রাখবো। জীবনের ওপারে, অসংখ্য কর্মে তার এক নতুন জীবন। মনের মণিকোঠায় থেকে যাবেন তিনি।’অভিভাবক হারানোর শোক অনুভব করছি উল্লেখ করে চিত্রনায়ক শাকিব খান তার ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে লিখেছেন, ‘চলে গেলেন আমাদের প্রিয় মিয়া ভাই (আকবর পাঠান ফারুক)। ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন। যতদিন তিনি সুস্থ সবল ছিলেন, ততদিন আমাকে স্নেহে আগলে রেখেছিলেন। আমার যেকোনো ভালো কাজ এবং ছবির পোস্টার কিংবা ট্রেলার রিলিজ দেখে তিনি নিজ থেকে অ্যাপ্রিসিয়েট করে গর্বিত হতেন। আমার কাছে শ্রদ্ধাভাজন এই মানুষটি ছিলেন চলচ্চিত্র অঙ্গনে প্রাজ্ঞজনদের একজন। কাজে কিংবা কাজের বাইরে এই মহান মানুষটির সাথে আমার অসংখ্য স্মৃতি। তার প্রয়াণে প্রিয় অভিনেতা হারানোর পাশাপাশি একজন অভিভাবক হারানোর শোক অনুভব করছি। ওপারে অনেক শান্তিতে থাকবেন।’
নায়ক ফারুকের স্মৃতিচারণ করে চিত্রনায়িকা অপু বিশ্বাস তার ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে লেখেন,‘ বাংলা চলচ্চিত্রের কিংবদন্তী অভিনেতা ও সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা জনাব আকবর হোসেন পাঠান ফারুক সাহেবের মৃত্যুতে আমরা গভীরভাবে শোকাহত। ওঁর সঙ্গে আমার প্রথম সিনেমা কোটি টাকার কাবিন। সবাই ওঁর জন্য দোয়া করবেন।’
চিত্রনায়ক অনন্ত জলিল তার ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে লিখেছেন, ‘প্রায় পাঁচ দশক ঢালিউডে অবদান রাখা ঢাকাই সিনেমার কিংবদন্তি চিত্রনায়ক ও ঢাকাণ্ড১৭ আসনের সংসদ সদস্য আকবর হোসেন পাঠান ফারুক (আমাদের ফারুক ভাই)। এই র্কীতিমান মহান মানুষটির প্রয়াণে গভীর শোক ও বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করছি এবং তার শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করছি।’
চিত্রনায়ক আরিফিন শুভ তার ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে লিখেছেন, ‘ভালো থাকবেন মিয়া ভাই। বাংলার সকল দর্শকের মনে চিরকাল বেঁচে থাকবেন আপনি। শ্রদ্ধা ও ভালোবাসা।’
এ ছাড়াও চিত্রনায়ক ইলিয়াস কাঞ্চন, চিত্রনায়িকা পূর্ণিমা, চিত্রনায়ক নাঈম, অভিনেতা চঞ্চল চৌধুরী, চিত্রনায়ক নিরব, অভিনেত্রী অভিনেত্রী বিজরী বরকতউল্লাহ, অভিনেতা মিশা সওদাগর, নির্মাতা সৈকত নাসির, গায়িকা আঁখি আলমগীরসহ অনেকেই ফারুকের মৃত্যুতে শোকবার্তা দিয়েছেন।