ঢাকা , বুধবার, ১৭ জুলাই ২০২৪, ২ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

নভেম্বর থেকে ১১ টোল প্লাজায় বাধ্যতামূলক ই-টোল

সারা দেশে সড়ক ও জনপদ অধিদপ্তরের (সওজ) আওতায় থাকা ৯টি সেতু ও দুটি সড়কে আগামী নভেম্বর থেকে স্বয়ংক্রিয় পদ্ধতিতে টোল আদায় বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। অক্টোবর মাসের পর কোনো যানবাহন ই-টোল ছাড়া টোল প্লাজা অতিক্রম করতে পারবে না।

শনিবার (২৭ মে) সওজের এক জরুরি বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ইলেকট্রনিক টোল কালেকশন (ইটিটি) সিস্টেম চালু করা হয়েছে। আগামী অক্টোবর মাসের পরের থেকে ইটিসি পদ্ধতি ছাড়া কোনো গাড়ির টোল আদায় করা যাবে না।

নভেম্বর থেকে যেসব সেতুতে বাধ্যতামূলক ই-টোল দিতে হবে, সেগুলো হলো— চট্টগ্রামের কর্ণফুলী ও মেঘনা সেতু। কুমিল্লার গোমতী সেতু, নরসিংদীর ভৈরব, চরসিন্দুর ও শহীদ ময়েজউদ্দিন সেতু, পটুয়াখালীর পায়রা সেতু, খুলনার খান জাহান আলী (রূপসা) সেতু এবং পাবনার লালন শাহ সেতু।

দুই মহাসড়ক হলো— নাটোরের আত্রাই টোল প্লাজা এবং বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মহাসড়ক।

বিজ্ঞপ্তিতে আরো বলা হয়, এসব টোল প্লাজায় ইটিসি ব্যবহারকারীদের নির্ধারিত টোল থেকে ১০ শতাংশ টাকা ছাড় দেওয়া হবে।

যেভাবে দেবেন ই-টোল

ডাচ বাংলা ব্যাংকের অ্যাপ নেক্সাস পে ব্যবহার করে টোল দেওয়া যাবে। ডাচ বাংলা ব্যাংকের যেকোনো শাখা বা ফার্স্ট ট্র্যাকে গেলেও গাড়ির নিবন্ধন করা যাবে। পর্যায়ক্রমে অন্যান্য মোবাইল ব্যাংক এবং ই-পেমেন্ট সিস্টেমের মাধ্যমেও ই-টোল দেওয়ার সুবিধা পাওয়া যাবে বলে জানিয়েছে সওজ।

এছাড়া মোবাইল ব্যাংকিং অ্যাপ রকেট ও উপায় ব্যবহার করেও স্বয়ংক্রিয় পদ্ধতিতে টোল দেওয়ার জন্য গাড়ির নিবন্ধন করা যাবে। আবার (স্টার) *২৬৮# নাম্বারে কল করে গ্রামীণ, রবি ও বাংলালিংক ব্যবহারকারীরা গাড়ির নিবন্ধন করতে পারবেন।

Tag :
আপলোডকারীর তথ্য

Bangal Kantha

নভেম্বর থেকে ১১ টোল প্লাজায় বাধ্যতামূলক ই-টোল

আপডেট টাইম : ০৪:৩৫ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৭ মে ২০২৩

সারা দেশে সড়ক ও জনপদ অধিদপ্তরের (সওজ) আওতায় থাকা ৯টি সেতু ও দুটি সড়কে আগামী নভেম্বর থেকে স্বয়ংক্রিয় পদ্ধতিতে টোল আদায় বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। অক্টোবর মাসের পর কোনো যানবাহন ই-টোল ছাড়া টোল প্লাজা অতিক্রম করতে পারবে না।

শনিবার (২৭ মে) সওজের এক জরুরি বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ইলেকট্রনিক টোল কালেকশন (ইটিটি) সিস্টেম চালু করা হয়েছে। আগামী অক্টোবর মাসের পরের থেকে ইটিসি পদ্ধতি ছাড়া কোনো গাড়ির টোল আদায় করা যাবে না।

নভেম্বর থেকে যেসব সেতুতে বাধ্যতামূলক ই-টোল দিতে হবে, সেগুলো হলো— চট্টগ্রামের কর্ণফুলী ও মেঘনা সেতু। কুমিল্লার গোমতী সেতু, নরসিংদীর ভৈরব, চরসিন্দুর ও শহীদ ময়েজউদ্দিন সেতু, পটুয়াখালীর পায়রা সেতু, খুলনার খান জাহান আলী (রূপসা) সেতু এবং পাবনার লালন শাহ সেতু।

দুই মহাসড়ক হলো— নাটোরের আত্রাই টোল প্লাজা এবং বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মহাসড়ক।

বিজ্ঞপ্তিতে আরো বলা হয়, এসব টোল প্লাজায় ইটিসি ব্যবহারকারীদের নির্ধারিত টোল থেকে ১০ শতাংশ টাকা ছাড় দেওয়া হবে।

যেভাবে দেবেন ই-টোল

ডাচ বাংলা ব্যাংকের অ্যাপ নেক্সাস পে ব্যবহার করে টোল দেওয়া যাবে। ডাচ বাংলা ব্যাংকের যেকোনো শাখা বা ফার্স্ট ট্র্যাকে গেলেও গাড়ির নিবন্ধন করা যাবে। পর্যায়ক্রমে অন্যান্য মোবাইল ব্যাংক এবং ই-পেমেন্ট সিস্টেমের মাধ্যমেও ই-টোল দেওয়ার সুবিধা পাওয়া যাবে বলে জানিয়েছে সওজ।

এছাড়া মোবাইল ব্যাংকিং অ্যাপ রকেট ও উপায় ব্যবহার করেও স্বয়ংক্রিয় পদ্ধতিতে টোল দেওয়ার জন্য গাড়ির নিবন্ধন করা যাবে। আবার (স্টার) *২৬৮# নাম্বারে কল করে গ্রামীণ, রবি ও বাংলালিংক ব্যবহারকারীরা গাড়ির নিবন্ধন করতে পারবেন।