,



চট্টগ্রামে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১৫

বাঙালী কণ্ঠ ডেস্কঃ চট্টগ্রামের লোহাগাড়ায় ট্রাক ও হিউম্যান হলারের মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১৫ জনে উন্নীত হয়েছে। এছাড়া ফেনীতে সড়ক দুর্ঘটনায় মৃত্যু হয়েছে এক দিনমজুরের। গত শনিবার রাতে এসব দুর্ঘটনা ঘটে। চট্টগ্রাম ব্যুরো ও প্রতিনিধির পাঠানো খবর—

চট্টগ্রাম: লোহাগাড়ার চুনতি রেঞ্জ অফিসের সামনে চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কে ট্রাক ও ম্যাজিক পরিবহন নামে পরিচিত হিউম্যান হলারের মুখোমুখি সংঘর্ষে আহত আরো

দুজনের মৃত্যু হয়েছে। গত শনিবার রাতে সংঘটিত এ সড়ক দুর্ঘটনায় এ নিয়ে মৃত্যু হয়েছে ১৫ জনের। নিহতরা সবাই দুর্ঘটনাকবলিত হিউম্যান হলারের যাত্রী।

নিহতদের মধ্যে ১১ জনের পরিচয় পাওয়া গেছে। তারা হলেন বান্দরবান লামা উপজেলার আজিজনগরের আব্বাস উদ্দিনের দুই ছেলে জসিম উদ্দিন (২৮) ও বেলাল হোসেন তাওরাত (১৭), নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার বাইশারীর কালা মিয়ার ছেলে মো. বাদশা (৩৮), আধুনগর লোহারদীঘির পাড় এলাকার জাফর আহমদের ছেলে জহির উদ্দিন (২৮), কক্সবাজারের চকরিয়ার গর্জনিয়া পাহাড় এলাকার নূর মোহাম্মদের ছেলে মো. সুমন (১৫), উত্তর হারবাং এলাকার মৃত আমির হোসেনের ছেলে মো. আবদুস ছালাম (৭০), চট্টগ্রামের লোহাগাড়ার আজিজনগরের আবদুর রশিদ (৫০), উত্তর কলাউজানের আবুল হোসেনের ছেলে মো. এনাম (৪৪), চুনতি মিরেরখিল এলাকার আবদুর রশিদের ছেলে সিরাজুল ইসলাম (৪০), বড়হাতিয়া কুমিরাঘোনার আবদুল মাবুদের ছেলে মো. রুবেল (২০) ও চকরিয়া উপজেলার মৃত ছৈয়দ আহমদের ছেলে মো. ফরহাদ (১৫)। এদের মধ্যে মো. ফরহাদ দুর্ঘটনাকবলিত হিউম্যান হলারটির চালক।

স্থানীয় সূত্র জানায়, শনিবার রাতে লোহাগাড়ার চুনতি রেঞ্জ অফিসের সামনে চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কে ট্রাক ও ম্যাজিক পরিবহনের মুখোমুখি সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে রাতেই ১৩ জনের মৃত্যু হয়। পরে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পর আরো দুজন মারা যান।

লোহাগাড়া থানার ওসি জাকির হোসেন জানান, লবণবোঝাই একটি ট্রাক কক্সবাজার থেকে চট্টগ্রামের দিকে আসছিল। আর যাত্রীবোঝাই ম্যাজিক পরিবহনটি লোহাগাড়া এলাকায় স্থানীয় রুটে চলাচল করে। যানবাহন দুটি লোহাগাড়ার চুনতি রেঞ্জ অফিসের সামনে এলে মুখোমুখি সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। লবণবোঝাই ট্রাকটি জব্দ করে পুলিশ হেফাজতে নেয়া হয়েছে। ট্রাকটির চালক পালিয়েছেন। তাকে ধরতে পুলিশ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। মহাসড়কের ঝুঁকিপূর্ণ বাঁকের কারণে এ দুর্ঘটনা ঘটতে পারে বলে প্রাথমিক ভাবে আমরা ধারণা করছি।

ফেনী: ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের লেমুয়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় দুলাল হোসেন (৪০) নামের এক দিনমজুর নিহত হয়েছেন। শনিবার দিবাগত রাত ২টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে। এ সময় আহত হন আরো নয়জন।

নিহত দুলাল ভোলার চরফ্যাশন এলাকার আমিরাবাদ গ্রামের বাসিন্দা। আহতরা হলেন আমিরাবাদের বাসিন্দা জামাল উদ্দীন (৩২), নাসির হোসেন (৪৫), হূদয় (৩০), শাহ আলম (৩৭), হাফিজুর রহমান (৩৮), মো. সাইফ উদ্দিন (২২), নুর নবী (৩২), সুমী (২৪) ও আসমা (২৫)।

আহতরা জানান, চট্টগ্রাম থেকে ভোলা যাওয়ার জন্য তারা শাহী পরিবহনের একটি বাসে

রওনা হন। গাড়িটি বেপরোয়া গতিতে চলতে থাকায় ফেনীর লেমুয়া এলাকায় এসে একটি বালুভর্তি ট্রাকের সঙ্গে সংঘর্ষ হয়। এতে দুলালসহ বেশ কয়েকজন আহত হন।

স্থানীয়রা এগিয়ে এসে তাদের হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পথে দুলাল মারা যান।

ফেনীর মুহুরীগঞ্জ পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ আবদুল মালেক এ খবরের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

Print Friendly, PDF & Email

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর