,



ভালো থাকার জন্যই সৌরভ-মধুমিতার ডিভোর্স

বাঙালী কণ্ঠ ডেস্কঃ সৌরভ চক্রবর্তী ও মধুমিতা সরকার। কলকাতার সিরিয়াল ‘সবিনয় নিবেদন’-এ অভিনয় করে এই জুটি দর্শকের মন কেড়েছিল। আর ‘বোঝে না সে বোঝে না’ সিরিয়ালের পাখি চরিত্রের জন্য বাংলাদেশেও পরিচিত মুখ মধুমিতা।

দুই অভিনয়শিল্পী প্রেমের শুরু ২০১১ সালে। এরপর বিয়েতে গড়ায় সম্পর্ক। ভক্তদের মন খারাপ করে দিয়ে সম্প্রতি জানালেন, বিবাহবিচ্ছেদের দিকে এগোচ্ছেন তারা।

আনন্দবাজার ডিজিটালকে সৌরভ জানান, বিবাহ বিচ্ছেদের পথেই এগোচ্ছেন তারা। কিন্তু হঠাৎ এই সিদ্ধান্ত?

অভিনেতা বলেন, “ডিভোর্স মানেই আমরা বেশির ভাগ ক্ষেত্রে ধরে নিই পরকীয়া বা বাড়ির কোনো সমস্যা। কিন্তু সবচেয়ে বড় ব্যাপার হলো দুজনের মধ্যে ভারসাম্য ঠিক রয়েছে কিনা। কোথাও গিয়ে আমাদের কম্পেটিবেলিটি খাপ খাচ্ছিল না। ডিভোর্সটা আমাদের কাছে ওই লড়তে লড়তে, ঘামতে ঘামতে করার বিষয় নয়। আমাদের মনে হয়েছে আমরা আলাদা থাকলে অনেক ভালো থাকব।’’

সঙ্গে জানান, বন্ধুত্ব থাকবে আগের মতোই। ভবিষ্যতে কোনো ছবিতে বা সিরিয়ালে যদি একসঙ্গে কাজ করতে হয় সে ক্ষেত্রে কী করবেন? সৌরভের বক্তব্য, ‘‘মনে তো হয় অসুবিধা হবে না। আমি বা মধুমিতা কেউই আগে তিনটা ডিভোর্স করে আসিনি। বাদবাকি এই মনে হওয়াটা মনই জানে।’’

কথায় কথায় তিনি বললেন আট বছরের দুর্দান্ত প্রেমের কথা। কষ্ট হচ্ছে তাও স্বীকার করে নিলেন অকপটে। তার কথায়, ‘‘সামান্য একটা মাচা বাঁধলে, সেটা ভাঙতে গেলেও খারাপ লাগে আর এ তো আট বছরের অভ্যাস।’’

‘‘আমরা ডিভোর্স করছি বলে মধুমিতা রাতারাতি আমার শত্রু হয়ে যাবে, তা তো নয়। আর তাছাড়া আমরাও আমাদের দুজনের মধ্যে সেই শত্রুতা আনতে চাই না। এখানে কেউ মারা যাচ্ছে না। দুটো মানুষ বাঁচতে চাইছেন আলাদাভাবে।’’ বলেন সৌরভ।

এই নিয়ে দুজনের পরিবারের প্রতিক্রিয়া সম্পর্কে জানালেন, প্রেম করেছিলেন পরিবারকে না জানিয়ে। তাই এই সিদ্ধান্তের ব্যাপারেও কেউ খুব একটা ঢুকতে চাইছেন না। তবে সৌরভের মা বিষয়টা নিয়ে কষ্ট পাচ্ছেন।

Print Friendly, PDF & Email

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর