ঈদের পরদিন থেকে সেন্টমার্টিনে বন্ধ থাকবে জাহাজ চলাচল

মিয়ানমারের অভ্যন্তরে চলমান সংঘাত ও নাব্যতা সংকটের কারণে আগে থেকেই টেকনাফের দমদমিয়া ঘাট থেকে সেন্টমার্টিনগামী জাহাজ চলাচল বন্ধ ঘোষণা করে জেলা প্রশাসন। তবে, ইনানীর নৌবাহিনীর জেটিঘাট থেকে দুটি পর্যটকবাহী জাহাজ চলাচলের অনুমতি দেওয়া ছিল। ঈদুল ফিতরের পরদিন থেকে ওই ঘাট থেকেও পর্যটকবাহী কোনো জাহাজ সেন্টমার্টিনে যাবে না এমন সিদ্ধান্তের কথা সোমবার (৮ এপ্রিল) সন্ধ্যায় জানিয়েছেন কক্সবাজারের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট (এডিএম) ইয়ামিন হোসেন।

এডিএম ইয়ামিন হোসেন বলেন, টেকনাফের দমদমিয়া ঘাট থেকে সেন্টমার্টিনগামী জাহাজ চলাচল বন্ধ ছিল। তবে, ইনানী জেটিঘাট থেকে জাহাজ চলাচলের অনুমতি ছিল। ঈদের পরদিন থেকে সেন্টমার্টিন রুটে সব ধরণের পর্যটকবাহী জাহাজ চলাচল বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, মিয়ানমার সংঘাতের প্রভাব এখন সেন্টমার্টিনের দিকে বেশি। ওই দিকে মিয়ানমারের অভ্যন্তরে বিস্ফোরণের খবর পাওয়া যাচ্ছে। তাই পর্যটকবাহী জাহাজ চলাচলের অনুমতি দিয়ে কোনো ঝুঁকি নিতে চায় না প্রশাসন। পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত সেন্টমার্টিন নৌপথে সব পর্যটকবাহী জাহাজ চলাচল বন্ধ থাকবে।

এর আগে, গত ২৯ মার্চ বিকেল ৩টার দিকে মিয়ানমারের অভ্যন্তর থেকে বিস্ফোরণের বিকট শব্দ শুনতে পান দেশের একমাত্র প্রবাল দ্বীপ সেন্টমার্টিনের বাসিন্দারা। ওই ঘটনায় দ্বীপের বাসিন্দারা আতঙ্কে ছিলেন বলে জানান সেন্টমার্টিন ইউনিয়ন পরিষদের ১ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য আকতার কামাল।

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর