বিশ্ব ইজতেমা নিয়ে ইমাম-খতিবদেরকে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের নির্দেশনা

আগামী ১৩-১৫ জানুয়ারি টঙ্গীর তুরাগ নদীর তীরে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্ব। দ্বিতীয় পর্ব অনুষ্ঠিত হবে ২০-২২ জানুয়ারি।

বিশ্ব ইজতেমা সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করতে ইজতেমা নিয়ে সব ধরনের বিভ্রান্তকর, বিদ্বেষ ও উসকানিমূলক বক্তব্য পরিহার করতে সরকারের পক্ষ থেকে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। একই সঙ্গে দেশের সব মসজিদে তাবলিগ জামাতের উভয়পক্ষের দেশি-বিদেশি জামাত ও মুসুল্লিদের অবস্থান নিশ্চিত করতে বলা হয়েছে।

সোমবার (৯ জানুয়ারি) ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালক মো. মুনিম হাসান স্বাক্ষরিত এক পরিপত্রে সরকারের দেওয়া এসব নির্দেশনার কথা জানানো হয়। ইজতেমা সুষ্ঠুভাবে সফল করতে সব ধরনের অপপ্রচার ও উসকানিমূলক বক্তব্য বন্ধের নির্দেশনা দিয়ে রোববার ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালক ও পুলিশ মহাপরিদর্শককে ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দেয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। এরই পরিপ্রেক্ষিতে ইসলামিক ফাউন্ডেশন দেশের সব ইমাম-খতিব ও সংশ্লিষ্টদের এ নির্দেশনা দেয়।

এতে বলা হয়, টঙ্গী বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্ব আগামী ১৩ থেকে ১৫ জানুয়ারি ও দ্বিতীয় পর্ব অনুষ্ঠিত ২০ থেকে ২২ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। ইজতেমা সুষ্ঠুভাবে অনুষ্ঠানের স্বার্থে আইনশৃঙ্খলা অক্ষুণ্ণ রাখা, ধর্মীয় ও সামাজিক সম্প্রীতি সুরক্ষা এবং বিদেশিদের কাছে দেশের ভাবমর্যাদা সমুন্নত রাখার নিমিত্তে সবধরনের বিভ্রান্তকর, বিদ্বেষ ও উসকানিমূলক বক্তব্য পরিহার করা এবং দেশের সব মসজিদে উভয়পক্ষের দেশি-বিদেশি জামাত ও মুসুল্লির অবস্থান নিশ্চিত করা জরুরি।

এমতাবস্থায় বিশ্ব ইজতেমা সুষ্ঠু ও সফলভাবে অনুষ্ঠানের স্বার্থে অপপ্রচার ও উসকানিমূলক বক্তব্য ও কর্মকাণ্ড পরিহার করার বিষয়ে বিভাগ ও জেলায় অবস্থিত সব মসজিদে জুমার খুতবার আগে এবং ওয়াক্তিয়া নামাজের আগে-পরে মসজিদের মাইক থেকে নিয়মিতভাবে প্রচারের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য নির্দেশক্রমে অনুরোধ করা হলো।

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর