হজযাত্রীদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা ও টিকা দেওয়া হবে যেসব কেন্দ্রে

চলতি বছরের হজ নিবন্ধন শেষ হয়েছে। হজের প্রথম ফ্লাইট শুরু হবে ২১ মে থেকে। বৈশ্বিক করোনা পরিস্থিতির কারণে এবারও হজযাত্রীদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা ও টিকা দেওয়া হবে। সে লক্ষ্যে দেশব্যাপী ৭৯টি কেন্দ্রে হজযাত্রীদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা ও টিকা দেওয়া হবে বলে জানিয়েছে ধর্মবিষয়ক মন্ত্রণালয়।

সরকারি হাসপাতাল অথবা সরকারের অনুমোদিত বেসরকারি যেকোনো হাসপাতাল বা ডায়াগনস্টিক সেন্টার থেকে বুকের এক্স-রে, ইসিজি, ব্লাড গ্রুপ, ইউরিন-আরএমই, ব্লাড সুগার রিপোর্ট উল্লেখিত টিকাকেন্দ্রে আসার সময় সঙ্গে নিয়ে আসতে হবে। এসব পরীক্ষা বিগত তিন মাসের মধ্যে করা হয়ে থাকলে আবার পরীক্ষার প্রয়োজন নেই। আগের স্বাস্থ্য পরীক্ষার রিপোর্ট নিয়ে টিকাকেন্দ্রে উপস্থিত থাকতে হবে।

বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় হজযাত্রীদের নিজ নিজ এজেন্সির মাধ্যমে ই-হেলথ প্রোফাইল ফরমের প্রিন্ট কপি সঙ্গে আনতে হবে।

সরকারি ব্যবস্থাপনায় হজযাত্রীদের নিকটবর্তী রেজিস্ট্রেশন সেন্টার (ইসলামিক ফাউন্ডেশনের জেলা কার্যালয়, জেলা প্রশাসকের কার্যালয়, ইউডিসি, হজ অফিস, আশকোনা) থেকে ই-হেলথ প্রোফাইল ফরম প্রিন্ট করে এবং নিবন্ধন সনদ সঙ্গে আনতে হবে।

সরকারি ব্যবস্থাপনার হজযাত্রীরা সংশ্লিষ্ট টিকাদান কেন্দ্র অথবা নিকটবর্তী রেজিস্ট্রেশন সেন্টার থেকে স্বাস্থ্য পরীক্ষা ও টিকা গ্রহণ সনদের প্রিন্ট সংগ্রহ করবেন। কোনো হজযাত্রী নির্ধারিত সময়ে টিকা গ্রহণে ব্যর্থ হলে হজযাত্রীরা রাজধানীর আশকোনায় হজ ক্যাম্পে স্থাপিত মেডিকেল সেন্টার থেকে টিকা গ্রহণ ও স্বাস্থ্য পরীক্ষার সনদ নিতে পারবেন।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নির্ধারিত কেন্দ্রগুলোর মধ্যে রয়েছে: ঢাকা ছাড়া সব জেলার সিভিল সার্জনের অফিস (৬৩ জেলা)। এ ছাড়াও রয়েছে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল (ঢামেক), স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ ও মিটফোর্ড হাসপাতাল, শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতাল, মুগদার ৫০০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতাল, ফুলবাড়িয়ার সরকারি কর্মচারী হাসপাতাল, রাজারবাগ কেন্দ্রীয় পুলিশ হাসপাতাল, বাংলাদেশ সচিবালয় ক্লিনিক, ঢাকা ক্যান্টনমেন্টের সম্মিলিত সামরিক হাসপাতাল, গাজীপুরের শহীদ তাজউদ্দিন আহমেদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল এবং শহীদ আহসান উল্লাহ মাস্টার জেনারেল হাসপাতাল।

এ ছাড়াও চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল (চমেক), সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল (খুমেক), বগুড়ার ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট মোহাম্মদ আলী হাসপাতাল, দিনাজপুরের ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট সদর হাসপাতালে হজযাত্রীরা স্বাস্থ্য পরীক্ষা ও টিকা নিতে পারবেন।

উল্লেখ্য, চাঁদ দেখা সাপেক্ষে চলতি বছরের ২৭ জুন (৯ জিলহজ) পবিত্র হজ অনুষ্ঠিত হবে। বাংলাদেশ থেকে এ বছর মোট ১ লাখ ২০ হাজার ৪৯১ জন হজযাত্রী নিবন্ধিত হয়েছেন।

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর