বাজেটের আগে তেল-গ্যাসের দাম বাড়বে না: প্রতিমন্ত্রী

বাজেটের আগে তেল-গ্যাসের দাম বাড়ানোর আশঙ্কা নেই বলে জানিয়েছেন বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বিপু।

শনিবার (২০ মে) রাজধানীর মতিঝিলে ঢাকা চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ড্রাস্ট্রিজ (ডিসিসিআই) আয়োজিত জ্বালানি বিষয়ক এক সেমিনার শেষে একথা বলেন তিনি।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘বাজেটের আগে তেল-গ্যাসের দাম বাড়ানোর আশঙ্কা নেই। তবে তেল গ্যাসের দাম নির্ধারণে পলিসি তৈরি হচ্ছে। এর মাধ্যমে শুধু দাম বাড়বে না, যদি আন্তর্জাতিক বাজারে দাম কমে; তাহলে দামের সঙ্গে সামঞ্জস্য করে দেশের বাজারেও দাম কমানো হবে।’

এছাড়া সংকট কাটাতে সরকার গ্যাস রেশনিংয়ে যাচ্ছে বলেও জানান প্রতিমন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘খুব দ্রুত শিল্পে গ্যাস সংকট কাটানোর ব্যবস্থা নেয়া হবে। সবসময় বিদ্যুৎ ও গ্যাস থাকবে। প্রয়োজন হলে পলিসি পরিবর্তন করে পরিকল্পিত শিল্প এলাকায় নিরবচ্ছিন্ন গ্যাস-বিদ্যুতের সরবরাহ নিশ্চিতে কাজ করবে বিপণন প্রতিষ্ঠানগুলো।’

আন্তর্জাতিক বাজারের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে সরকার প্রাইস মেকানিজমের দিকে যাচ্ছে উল্লেখ করে নসরুল হামিদ বলেন, এর মাধ্যমে প্রতিমাসে ধীরে ধীরে ভর্তুকির পরিমাণ কমিয়ে আনা হবে। বর্তমানে গ্যাস, তেল ও বিদ্যুতের দাম নিয়ে কাজ চলছে। এ বিষয়ে পলিসি তৈরি করা হচ্ছে। অদূর ভবিষ্যতে বাজারে দামের পরিস্থিতির ওপর ভিত্তি করে জ্বালানি ও বিদ্যুৎ বিক্রি করা হবে।

সেমিনারে আরও উপস্থিত ছিলেন ডিসিসিআই সভাপতি ব্যারিস্টার সামির সাত্তারসহ অনেকে।

এর আগে শুক্রবার (১৯ মে) নিজ বাসভবনে গণমাধ্যমের সঙ্গে আয়োজিত এক মতবিনিময় সভায় প্রতিমন্ত্রী জানিয়েছেন, এখন থেকে এক মাস পর পর আন্তর্জাতিক বাজারের দামের সঙ্গে মিল রেখে দেশের বাজারে সমন্বয় হবে জ্বালানি তেল ও বিদ্যুতের দাম। আর এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন নয়, বিশ্ববাজারের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে সরকার এ মূল্য নির্ধারণ করবে।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, বিদ্যুৎ-জ্বালানি খাতে বাড়তি ভতুর্কির বোঝা কমাতেই, প্রতিবেশী ভারতের মতো জ্বালানি তেলের মূল্য সমন্বয়ের এমন সিদ্ধান্ত সরকারের। এ সংক্রান্ত নীতিমালা প্রণয়নও প্রায় শেষ পর্যায়ে।

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর