মাঠে ফেরার লড়াই শুরু মাহমুদউল্লাহর

বিশ্বকাপের শেষ ম্যাচে চোটে পড়েছিলেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। এবার মাঠে ফেরার লড়াই শুরু করেছেন তিনি। মিরপুরে একাডেমি মাঠে রানিং শুরু করেছেন এই টাইগার অলরাউন্ডার। ইনজুরির জন্য নিউজিল্যান্ড সফরে নেই বিশ্বকাপে দারুণ পারফর্ম করা এই ক্রিকেটার। তবে বিপিএল দিয়ে মাঠে ফিরতে পুনর্বাসন শুরু করেছেন সাইলেন্ট কিলার।

গতকাল (৬ ডিসেম্বর) মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে যখন উইকেট পড়ার মিছিল চলছিল, তখন একাডেমি মাঠে হাসি মুখে পা রাখেন রিয়াদ। এমনিতেই ইনজুরির কারণে দলের বাইরে আছেন। খেলতে পারবেন না কিউইদের বিপক্ষে অ্যাওয়ে সিরিজে। তবে মাঠে ফেরার মিশন ভালোভাবেই শুরু করেছেন।

একাডেমি মাঠে প্রবেশ করেই কোচ ওয়াসিম জাফরের সঙ্গে কুশল বিনিময় করেন রিয়াদ। এরপর জাতীয় দলের ফিল্ডিং কোচ শেন ম্যাকডারমটের দিকে এগিয়ে যান তিনি। সেখানে ব্যাগ থেকে কিছু একটা বের করে উপহার দিলেন টাইগার কোচকে। ব্যাগে কি ছিল সেটা জানা না গেলেও উপহার পেয়ে অজি কোচ খুশিই হয়েছেন।

মাহমুদউল্লাহ’র হাসিটা আরও চওড়া হয় জাতীয় দলের সাবেক সতীর্থ মোহাম্মদ আশরাফুলকে দেখলে। কোনো একটা বিষয় নিয়ে দুজনের হাসিটা যেন থামছিলই না। মাহমুদউল্লাহ’র কাঁধের ইনজুরির অবস্থা জানতে চাইলেন, সম্প্রতি নির্বাচক পদে নাম উচ্চারণ হওয়া আশরাফুল।

মাহমুদউল্লাহ যে সুস্থতার পথে সেটা জেনে হয়তো নির্ভার হয়েই নিজের কাজে চলে গেলেন অ্যাশ। এরপর মাহমুদউল্লাহ শুরু করেন তার লড়াই। বিপিএলের আগে ফিট হয়ে মাঠে ফেরার। নিজের লড়াইগুলো বরাবর একাই করেন সাইলেন্ট কিলার।

কখনো জনসম্মুখে এসে অভিযোগ করতে দেখা যায় না তাকে। অন্যদের মতো হুটহাট সংবাদ সম্মেলন ডেকে বিতর্কেরও জন্ম দেন না। বিশ্বকাপের আগে অনেকেই যার ক্যারিয়ারের ইতি টেনেছিলেন, তাদের সব অনুমান ভুল প্রমান করে মাহমুদউল্লাহ’র প্রত্যাবর্তনটা হয় রাজসিক।

বিশ্বকাপে ব্যাট হাতে দেশের হয়ে সর্বোচ্চ রান, একমাত্র সেঞ্চুরি এসেছিল তার ব্যাট থেকেই। ফিট থাকলে হয়তো উঠতেন নিউজিল্যান্ডগামী বিমানে। তবে এবার যাওয়া হচ্ছে না। নিশ্চিতভাবেই মাহমুদউল্লাহর সার্ভিস মিস করবে বাংলাদেশ। দ্রুত ফিট হয়ে মাঠে ফিরুক মাহমুদউল্লাহ সেটাই চাওয়া সবার।

Print Friendly, PDF & Email

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর