ঢাকা , শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪, ২৮ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

নিবন্ধন চেয়ে ১৮শ অনলাইন পত্রিকার আবেদন

সরকারের শর্ত মেনে নিবন্ধন পাওয়ার জন্য তথ্য অধিদফতরে আবেদন করেছে এক হাজার ৮০০ অনলাইন সংবাদমাধ্যম।

আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীসহ রাষ্ট্রের বিভিন্ন সংস্থার মাধ্যমে যাচাই-বাছাই করে আবেদনকারী প্রতিষ্ঠানগুলোকে নিবন্ধন দেয়া হবে বলে সরকারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

অপসাংবাদিকতা রোধে সব অনলাইন সংবাদমাধ্যমকে নিবন্ধনের আওতায় আনতে গত বছরের নভেম্বরে আবেদন নেয়া শুরু হয়। শুরুতে ১৫ ডিসেম্বর পর্যন্ত সময় বেঁধে দেয়া হলেও সময় বাড়ানো হয় চার দফা।

শেষ বার সময় বৃদ্ধির সময় ১৭ এপ্রিলের মধ্যে নিবন্ধন শেষ করতে বলা হলেও এখনও কেউ আবেদন করতে চাইল তা নেয়া হচ্ছে।

অনলাইন সংবাদমাধ্যম নিবন্ধন কার্যক্রমের সঙ্গে যুক্ত তথ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত প্রধান তথ্য কর্মকর্তা মোহাম্মদ ইসতাক হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, ১ জুন পর্যন্ত এক হাজার ৮০০ আবেদন তারা পেয়েছেন। এর মধ্যে পত্রিকারগুলোর অনলাইন সংস্করণ এবং অনলাইন টেলিভিশনের আবেদনও রয়েছে।

অনলাইন গণমাধ্যম নিবন্ধনের আবেদন চেয়ে সরকারের পক্ষ থেকে বলা হয়, বাংলাদেশের অনলাইন পত্রিকার প্রকাশকদের পত্রিকা প্রকাশের ক্ষেত্রে সরকারি সুযোগ-সুবিধা নিশ্চিত করা এবং অপসাংবাদিকতা রোধ করার লক্ষ্যে সরকার নিবন্ধন কার্যক্রম চালু করেছে।

সরকারের নিবন্ধন পাওয়ার জন্য অনলাইন সংবাদমাধ্যমগুলোকে নির্ধারিত নিবন্ধন ফরম ও একটি প্রত্যয়নপত্র বা হলফনামা পূরণ করে তথ্য অধিদফতরে জমা দিতে বলা হয়।

প্রসঙ্গত, বাংলাদেশে বর্তমানে ২ হাজার ৮১০টি দৈনিক, সাপ্তাহিক, পাক্ষিক, মাসিক, ত্রৈমাসিক ও ষান্মাষিক পত্রিকা রয়েছে।

এ ছাড়া ৪৩টি বেসরকারি টেলিভিশনের সরকারি অনুমোদন রয়েছে। এর মধ্যে দুটি টেলিভিশনের লাইসেন্স স্থগিত রয়েছে, সম্প্রচারে আছে ২৪টি।

Tag :
আপলোডকারীর তথ্য

Bangal Kantha

নিবন্ধন চেয়ে ১৮শ অনলাইন পত্রিকার আবেদন

আপডেট টাইম : ০৬:৩৫ অপরাহ্ন, বুধবার, ১ জুন ২০১৬

সরকারের শর্ত মেনে নিবন্ধন পাওয়ার জন্য তথ্য অধিদফতরে আবেদন করেছে এক হাজার ৮০০ অনলাইন সংবাদমাধ্যম।

আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীসহ রাষ্ট্রের বিভিন্ন সংস্থার মাধ্যমে যাচাই-বাছাই করে আবেদনকারী প্রতিষ্ঠানগুলোকে নিবন্ধন দেয়া হবে বলে সরকারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

অপসাংবাদিকতা রোধে সব অনলাইন সংবাদমাধ্যমকে নিবন্ধনের আওতায় আনতে গত বছরের নভেম্বরে আবেদন নেয়া শুরু হয়। শুরুতে ১৫ ডিসেম্বর পর্যন্ত সময় বেঁধে দেয়া হলেও সময় বাড়ানো হয় চার দফা।

শেষ বার সময় বৃদ্ধির সময় ১৭ এপ্রিলের মধ্যে নিবন্ধন শেষ করতে বলা হলেও এখনও কেউ আবেদন করতে চাইল তা নেয়া হচ্ছে।

অনলাইন সংবাদমাধ্যম নিবন্ধন কার্যক্রমের সঙ্গে যুক্ত তথ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত প্রধান তথ্য কর্মকর্তা মোহাম্মদ ইসতাক হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, ১ জুন পর্যন্ত এক হাজার ৮০০ আবেদন তারা পেয়েছেন। এর মধ্যে পত্রিকারগুলোর অনলাইন সংস্করণ এবং অনলাইন টেলিভিশনের আবেদনও রয়েছে।

অনলাইন গণমাধ্যম নিবন্ধনের আবেদন চেয়ে সরকারের পক্ষ থেকে বলা হয়, বাংলাদেশের অনলাইন পত্রিকার প্রকাশকদের পত্রিকা প্রকাশের ক্ষেত্রে সরকারি সুযোগ-সুবিধা নিশ্চিত করা এবং অপসাংবাদিকতা রোধ করার লক্ষ্যে সরকার নিবন্ধন কার্যক্রম চালু করেছে।

সরকারের নিবন্ধন পাওয়ার জন্য অনলাইন সংবাদমাধ্যমগুলোকে নির্ধারিত নিবন্ধন ফরম ও একটি প্রত্যয়নপত্র বা হলফনামা পূরণ করে তথ্য অধিদফতরে জমা দিতে বলা হয়।

প্রসঙ্গত, বাংলাদেশে বর্তমানে ২ হাজার ৮১০টি দৈনিক, সাপ্তাহিক, পাক্ষিক, মাসিক, ত্রৈমাসিক ও ষান্মাষিক পত্রিকা রয়েছে।

এ ছাড়া ৪৩টি বেসরকারি টেলিভিশনের সরকারি অনুমোদন রয়েছে। এর মধ্যে দুটি টেলিভিশনের লাইসেন্স স্থগিত রয়েছে, সম্প্রচারে আছে ২৪টি।