,



মান ভাঙছে না অপুর

প্রচণ্ড অভিমান করেছেন চিত্রনায়িকা অপু বিশ্বাস। দীর্ঘসময় পার হয়ে গেলেও তার মান ভাঙছে না কোনোভাবেই। অপুর অভিমানের কারণ তার প্রতি চিত্রনায়ক শাকিব খানের অবহেলা। শাকিবের কারণে গত মার্চ থেকে কর্মহীন অলস সময় কাটাতে হচ্ছে তাকে। মার্চে শাকিব খান উড়াল দেন কলকাতায়। সেখানে টলিউড অভিনেত্রী শ্রাবন্তীর সঙ্গে ‘শিকারি’ ছবির সেটে নেচে গেয়ে বেড়ান শাকিব। মানে দু’জন জুটি বেধেছেন এই ছবিতে। এখানেই ঘটেছে বিপত্তি। শাকিব যখন ছবিটিতে চুক্তিবদ্ধ হতে যাচ্ছিলেন অপু তখনই তাকে সোজা কথায় না করে দিয়েছিলেন। কিন্তু শাকিব খান অপুর কথা রাখেননি। বর্তমানে অপুর হাতে থাকা প্রতিটি ছবির নায়কই শাকিব খান। এগুলোর মধ্যে অন্যতম হচ্ছে পাঙ্কুজামাই, রাজনীতি ও সম্রাট। অপু ক্ষোভ নিয়ে তার কাছের এক মানুষকে বলেন, আমার অভিনীত ৯৫ ভাগ ছবির নায়ক হচ্ছেন শাকিব। তার অনুরোধে অন্য কোনো নায়কের সঙ্গে খুব একটা কাজ করিনি। বরাবরই তার কথা রেখেছি। অথচ শাকিব এখন আমার কথা শুনছে না। আমরা ঢালিউডের সবচেয়ে সফল জুটি হওয়া সত্বেও শাকিব এখন দেশি-বিদেশি সব নায়িকার সঙ্গে জুটি বেধে চলেছেন। আমি যদি তার কথা রাখতে পারি, তার জন্য ত্যাগ স্বীকার করতে পারি, তাহলে শাকিব কেন পারেন না। আমার প্রতি তার এমন আচরণ সত্যিই দুঃখজনক। শাকিব খান গত মার্চ মাস থেকে চলতি মাসের প্রথম সপ্তাহ পর্যন্ত কলকাতায় ‘শিকারি’ ছবির টানা শুটিংয়ে ব্যস্ত ছিলেন। এই সময়টাতে অপু অভিমান নিয়ে ঘরে বসে শুধু অলস সময় কাটাননি। শাকিবের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হওয়া ‘বসগিরি’ ছবি থেকে নিজেকে গুটিয়ে নিয়েছেন। মানে ছবিটিতে তিনি কাজ করবেন না বলে জানিয়ে দিয়েছেন নির্মাতা শামীম রনিকে। ২ মে শাকিব ঢাকা ফিরে এসে বলেন, আসলে অপু অনেকটা মুটিয়ে গেছে। এই ছবির জন্য যে লুক তার দরকার তা এখনও আয়ত্ব করতে পারেনি অপু। অথচ ৫ মে থেকে ছবির শুটিং শুরু। নিজেকে ছবিটির জন্য প্রস্তুত করতে না পারার কারণেই মূলত সে সরে দাঁড়িয়েছে। তবে চাইলেই আবারও ফিরতে পারেন। এদিকে, অপু বিশ্বাস অভিমানে নিজেকে গত দু’মাস ধরে এতটাই আড়াল করে নিয়েছেন যে চলচ্চিত্র নির্মাতা, সাংবাদিকসহ কেউই তার সন্ধানও পাচ্ছেন না। তার সব কয়টি মোবাইল নাম্বারও বন্ধ। একই মত পোষণ করেন শাকিব খানও। তিনি বলেন, আমিও তাকে কোনোভাবে খুঁজে পাচ্ছি না। ছোটখাটো ব্যাপার নিয়ে সে এভাবে রিঅ্যাক্ট করবে তা কখনও ভাবতে পারিনি।

Print Friendly, PDF & Email

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর