,



আনিস-সাঈদ মন্ত্রীর মর্যাদা পেলেন, নাছিরের কি দোষ

ঢাকাকে দেশের রাজধানী বলা হলে, চট্টগ্রামকে বলা হয় বাণিজ্যিক রাজধানী। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশক্রমে ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের দুই মেয়রকে পূর্ণ মন্ত্রীর মর্যাদা দেয়া হয়েছে। অথচ বাণিজ্যিক রাজধানী চট্টগ্রামের নগরপিতা আ জ ম নাছিরকে মন্ত্রী বা প্রতিমন্ত্রীর পদমর্যাদা দেয়া হয়নি। অথচ কয়েকবছর আগে গঠিত নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেয়র সেলিনা হায়াত আইভি পেয়েছেন উপমন্ত্রীর মর্যাদা।

আনিসুল-সাঈদের মন্ত্রী হওয়ার খবরে চট্টগ্রামের মানুষ আহত হয়েছে তাদের নগরপিতাকে সম মর্যাদা না দেয়ায়। তাই চট্টগ্রাম নগরবাসীর প্রশ্ন আনিস-সাঈদ মন্ত্রী হলেন, নাছিরের কি দোষ ? এখানে প্রশ্ন উঠেছে যে, এটা চট্টগ্রামের মানুষের প্রতি বিমাতাসূলভ আচরণ নয় কি?

নগরবাসীর দাবি, আনিস-সাঈদের পাশাপাশি চট্টগ্রাম সিটির নগর পিতাকেও মন্ত্রী পদমর্যাদা দেয়া উচিত।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, ২০০৯ সালের আগে যখন এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরী চট্টগাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ছিলেন তখন তাকে প্রতিমন্ত্রীর পদমর্যাদা দেয়া হয়েছে। এছাড়াও অবিভক্ত ঢাকা সিটি করপোরেশনের মেয়র মন্ত্রী এবং অন্য সিটি করপোরেশনের মেয়ররা প্রতিমন্ত্রীর মর্যাদা ছিল। কিন্তু ২০০৯ সালে আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন মহাজোট সরকার দায়িত্ব নেওয়ার পর মেয়রদের কোনো পদমর্যাদা দেওয়া হয়নি।

এক্ষেত্রে অভিযোগ রয়েছে, অন্যান্য সিটি কর্পোরেশনের ন্যায় চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনে বিএনপি সমর্থিত মেয়র মনজুর আলম থাকায় তাকে প্রতিমন্ত্রীর পদমর্যাদা দেয়া হয়নি। এবার তো চট্টগ্রামে আওয়ামী লীগের সমর্থিত মেয়র রয়েছেন তাকে কেন মন্ত্রী বা প্রতিমন্ত্রীর পদ মর্যাদা দেয়া হয়নি এমন প্রশ্ন এখন চট্টগ্রাম নগর জুড়ে।

এ ব্যাপারে চট্টগ্রামের বেশ কয়েকজন সুধী জনদের মধ্য থেকে নগর পরিকল্পনাবিদ প্রকৌশলী আশরাফ আলী খান জানান, বিট্রিশ আমল থেকে দেশের জন্য সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ জনপদ চট্টগ্রাম নগরী। চট্টগ্রাম নগরীকে বাদ দিয়ে দেশের সার্বিক কোন বিষয় চিন্তা করা যায় না। এক সময় মহিউদ্দিন চৌধুরী যখন মেয়র ছিলেন তখন তাকে প্রতিমন্ত্রীর মর্যাদা দেয়া হয়েছিল। কিন্তু এবার প্রধানমন্ত্রী বিভক্ত ঢাকার দুই মেয়রকে মন্ত্রী পদমর্যাদা দিলে চট্টগ্রামের মেয়র এ মর্যাদা না দেয়ার চট্টগ্রাম নগরাবাসী অনেকটা ক্ষুদ্ধ। তাই আমি মনে করি চট্টগ্রাম নগরবাসী ও চট্টগ্রামের সম্মান রক্ষার্থে মেয়র আ জ ম নাছিরকে মন্ত্রী পদমর্যাদা দেয়া উচিত।

এ ব্যাপারে আ জ ম নাছিরের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, আমি মেয়র হয়েছি জনগণের সেবা করার জন্য। আমি মন্ত্রী পদমর্যাদ দিয়ে কি করবো। মেয়র নির্বাচিত হওয়ার পর যে বেতনভাতা পায় তাওতো আমি নিই না। কি করবো মন্ত্রী হয়ে। তবে হ্যা এ ক্ষেত্রে প্রধানমন্ত্রী যা ভাল মনে করবেন আমি তা মেনে নিব। চট্টগ্রামের উন্নয়ণের স্বার্থে যদি মন্ত্রী পদ মর্যাদ দরকার হয় তাহলে এটি তিনিই ভাল বুঝবেন।

উল্লেখ্য, ১৯৯০ সালে এরশাদ সরকারের আমলেই ঢাকার মেয়র হিসেবে প্রথম নাজিউর রহমানকে প্রতিমন্ত্রীর মর্যাদা দেয়া হয়। বিএনপি এবং আওয়ামী লীগ আমলের দু’ মেয়র সাদেক হোসেন খোকা এবং মোহাম্মদ হানিফ পূর্ণ মন্ত্রীর মর্যাদা পেয়েছিলেন। এছাড়াও চট্টগ্রামের মেয়র মহিউদ্দিন চৌধুরী প্রতিমন্ত্রীর মর্যাদ পেয়েছিলেন। ওই সময় তৎকালীন সরকার একটি নির্বাহী আদেশে তাদের এ মর্যাদা নিশ্চিত করা হয়েছিল।

Print Friendly, PDF & Email

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর