রাজশাহীতে গভীর রাতে চিকিৎসককে কুপিয়ে হত্যা

বাঙালী কণ্ঠ ডেস্কঃ রাজশাহীতে গোলাম কাজেম আলী নামে এক চিকিৎসককে কুপিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। নিহত চিকিৎসক কাজেম আলী চর্ম ও যৌন রোগ বিশেষজ্ঞ ছিলেন। তিনি রাজশাহী মেডিকেল কলেজের (রামেক) ৪২তম এমবিবিএস ব্যাচের সাবেক শিক্ষার্থী।

রোববার (২৯ অক্টোবর) রাত পৌনে ১২টার দিকে নগরীর বর্নালী মোড় এলাকায় তাকে এলোপাথাড়ি কোপানো হয়। এসময় তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সেখানে তিনি মারা যান।

সোমবার (৩০ অক্টোবর) সকাল ৯টায় রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশের (আরএমপি) রাজপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রফিকুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

ডা. গোলাম কাজেম আলীর বাড়ি চাঁপাইনবাবগঞ্জের সদর উপজেলার দেবিনগর এলাকায়। তিনি রাজশাহী মেডিকেল কলেজ থেকে এমবিবিএস পাস করেন। রাজশাহীতে দুটি ডায়াগনস্টিক সেন্টারে সুনামের সঙ্গে রোগী দেখতেন ডা. গোলাম কাজেম আলী। চর্ম ও যৌন রোগ বিশেষজ্ঞ হিসেবে এ অঞ্চলে তার সুখ্যাতি ছড়িয়ে পড়ে।

নিহতের ভাই কলেজশিক্ষক আজম আলী বলেন, রোববার (২৯ অক্টোবর) রাতে চেম্বারে রোগী দেখে নগরীর উপশহরের বাসায় ফিরছিলেন ডা. কাজেম। নগরীর বর্ণালী মোড় এলাকায় পৌঁছলে দুর্বৃত্তরা তাকে এলোপাথাড়িভাবে কোপায়। এসময় রাস্তায় লুটিয়ে পড়েন তিনি। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের আইসিইউতে নেওয়া হয়। কিন্তু ঘণ্টাখানেক পর রাত ১টার দিকে তিনি মারা যান।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, এ চিকিৎসক মোটরসাইকেলযোগে উপশহরের দিকে যাচ্ছিলেন। হঠাৎ একটি মাইক্রোবাস থেকে অজ্ঞাত কয়েকজন ব্যক্তি নেমে তার মোটরসাইকেল গতিরোধ করে। এসময় কিছু বুঝে ওঠার আগেই তার বুকে ছুরিকাঘাত করে। আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে স্থানীয়দের মাঝে। এ সুযোগে দ্রুত পালিয়ে যায় দুর্বৃত্তরা। পরে রক্তাক্ত অবস্থায় তারা ওই চিকিৎসককে হাসপাতালে পাঠানোর ব্যবস্থা করেন।

রামেক হাসপাতালের একটি সূত্র জানিয়েছে, ডা. কাজেম আলীর হৃদপিণ্ড (হার্ট) বরাবর তিনটি ছুরির আঘাত পাওয়া গেছে। দুর্বৃত্তরা এক্যুরেট আঘাতের পরিকল্পনা করেই তাকে এভাবে কুপিয়েছে।

ওসি রফিকুল ইসলাম বলেন, এ ঘটনায় থানায় এখনও মামলা হয়নি। কাউকে গ্রেফতার করাও যায়নি। তবে আইনি ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Print Friendly, PDF & Email

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর