টিএসসি স্টেশনে বিক্রি হচ্ছে মেট্রোরেলের র‌্যাপিড পাস

আজ থেকে চালু হয়েছে মেট্রোরেলের বিজয় সরনী ও টিএসসি স্টেশন। আজ বুধবার সকালে উত্তরা থেকে ছেড়ে আসা ট্রেনটি সকাল ৭ টা ১৪ মিনিটে টিএসসি স্টেশনে পৌঁছায়। এতে উত্তরা থেকে টিএসসিতে আসতে যাত্রীদের সময় লেগেছে মাত্র ২৫ মিনিট। এত কম সময়ে গন্তব্যে পৌঁছে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করছেন যাত্রীরা।

প্রথম দিনেই টিএসএসি স্টেশনের নিচে র‌্যাপিড পাস বিক্রির ক্যাম্পেইন করা হচ্ছে। এতে যাত্রীদের সাড়াও মিলছে বেশ।

আজ বুধবার সকালে মেট্রোরেলের টিএসসি স্টেশনে গিয়ে দেখা যায়, র‌্যাপিড পাস বিক্রির বুথ থেকে অনেকেই পাস কিনছেন। প্রতিটির কার্ডের মূল্য রাখা হচ্ছে ৪০০টাকা। এরমধ্যে ২০০ টাকা কার্ডে রিচার্জ থাকবে। এ টাকা যাত্রীরা ভ্রমনে ব্যবহার করতে পারবেন। ডাচ বাংলা ব্যাংকের পক্ষ থেকে এ কার্ড দেওয়া হচ্ছে।

ডাচ বাংলা ব্যাংকের সিনিয়র সেলস ম্যানেজার মো. মাহমুদুল হাসান বলেন, সকাল ৯টা থেকে ক্যাম্পেইন বুথ বসানো হয়েছে। সকাল থেকে যাত্রীরা ৬০টির মতো র‌্যাপিড পাস নিয়েছেন। শুধু মেট্রোরেল নয় এ র‌্যাপিড পাস নিয়ে উত্তরায় বিআরটিসির কিছু বাসেও যাত্রীরা যাতায়াত করতে পারবেন। তাছাড়া আগামীতে ঢাকার গণপরিবহনে এবং রাস্তা ও সেতুর টোল প্লাজায় এই র‌্যাপিড পাসের মাধ্যমে পেমেন্ট করা যাবে।

টিএসসি স্টেশনে র‌্যাপিড পাস সংগ্রহ করা ঢাকা বিশ্ববিদ্যলয়ের শিক্ষার্থী মুনতাসিনহা বলেন, ‘আমার বাসা উত্তরা। এখন থেকে মেট্রোরেলে সহজেই বিশ্ববিদ্যালয়ে এসে ক্লাস করতে পারবো। এজন্যই র‌্যাপিড পাস সংগ্রহ করলাম।’

মেট্রোরেলে র‌্যাপিড পাস ছাড়াও এমআরটি পাসের মাধ্যমে এবং সরাসরি স্টেশন থেকে টিকেট ক্রয় করে যাতায়াত করা যাবে। এমআরটি পাসের মূল্য ৫০০টাকা। এর মধ্যে ৩০০টাকা কার্ডে রিচার্জ হবে যেটি যাত্রী যাতায়াতে ব্যবহার করতে পারবেন।

Print Friendly, PDF & Email

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর