ব্যালট পেপারে হাত দিয়ে কেউ রক্ষা পাবেন না

গাজীপুর পুলিশ সুপার কাজী শফিকুল আলম বলেছেন, ‘দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন বাধাগ্রস্ত করতে দেওয়া হবে না। ব্যালট পেপারে হাত দিয়ে কেউ রক্ষা পাবেন না। যারা নির্বাচনে দায়িত্ব পালন করবেন তাদের ভয়ের কিছু নেই। আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সব সময় আপনাদের পাশে থাকবে। আপনাদের শরীরে হাত দিলে আমরা বসে থাকব না। আইনশৃঙ্খলা বাহিনী একবিন্দুও ছাড় দিবে না। পাশাপাশি আপনার হাতে ব্যাপক ক্ষমতা দেওয়া হয়েছে।’

আজ শুক্রবার সকালে দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে ভোটগ্রহণে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠানে তাদের উদ্দেশে তিনি এসব কথা বলেন। গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলা নির্বাচন অফিসের আয়োজনে বীর মুক্তিযোদ্ধা রহমত আলী সরকারি কলেজের হলরুমে এই অনুষ্ঠান হয়। শ্রীপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ও সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা শামীমা ইয়াসমিন অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে গাজীপুর জেলা প্রশাসক ও রিটার্নিং কর্মকর্তা আবুল ফাতে মোহাম্মদ শফিকুল ইসলাম বলেন, ‘আপনি কী করতে পারবেন আর কী করতে পারবেন না, নির্বাচন কর্মকর্তা বিশেষ বিধান আইন, ১৯৯১ বলা হয়েছে। এই আইনে আটটি ধারায় পরিষ্কার করে বলা হয়েছে। এখানে খুব স্পষ্টভাবে বলে দেওয়া হয়েছে, নির্বাচনের কাজে যুক্ত হওয়ার পর আপনার-আমার অন্য কোনো কাজ করা যাবে না। সাংঘর্ষিক কোনো কাজ করা যাবে না।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমরা অনেক ধরনের আশঙ্কা করছি, বিশেষ করে একটি দল নাশকতার পরিকল্পনা করতে পারে। আপনারা তাদের বিষয়ে বাড়তি সর্তক থাকবেন। যাতে করে তাদের সঠিক জবাব দিতে পারেন। ব্যালট পেপার আপনার হেফাজতে রাখবেন। পুলিং এজেন্ট ও আপনার ভোটগ্রহণ সহকারীদের মোবাইল আপনার কাছে জমা রাখবেন ভোটগ্রহণ শেষ না হওয়া পর্যন্ত।’

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন গাজীপুর জেলা পুলিশের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার কালিয়াকৈর সার্কেল আজমীর হোসেন, জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা এএইচএম কামরুল হাসান, উপজেলা সহকারী কমিশনার ভূমি মো. আল মামুন, উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা আল নোমান প্রমুখ।

Print Friendly, PDF & Email

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর