সন্ত্রাস-দুর্নীতি দমনে পুলিশের সক্রিয় ভূমিকা চান প্রধানমন্ত্রী

জঙ্গিবাদ, সন্ত্রাসবাদ, মাদক ও দুর্নীতি দমনে সক্রিয় ভূমিকা পালন করতে পুলিশের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

মঙ্গলবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) রাজধানীর রাজারবাগ পুলিশ লাইন্সে পুলিশ সপ্তাহ-২০২৪ এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ আহ্বান জানান তিনি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘জঙ্গিবাদ, সন্ত্রাস, মাদক ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে আমাদের অভিযান অব্যাহত থাকবে। এ ব্যাপারে পুলিশকে সক্রিয় ভূমিকা পালন করতে হবে। দেশকে উন্নত ও সমৃদ্ধশালী হিসেবে গড়ে তুলতে দেশের শান্তি ও স্থিতিশীলতা একান্ত প্রয়োজন।’

‘স্মার্ট পুলিশ, স্মার্ট দেশ, শান্তি ও প্রগতির বাংলাদেশ’ প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে শুরু হওয়া পুলিশ সপ্তাহ চলবে আগামী ৩ মার্চ পর্যন্ত।

পেশাদারিত্ব, আন্তরিকতা ও যোগ্যতা প্রদর্শনের মাধ্যমে নিজেদেরকে জনগণের বন্ধু হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করতে পুলিশ সদস্যদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

তিনি বলেন, ‘দেশের মানুষ বিপদে পড়লে পুলিশের কাছে যায়। তাই, পুলিশ জনগণের বন্ধু। যা (এই নীতি) দীর্ঘদিন ধরে চলে আসছে। এটা প্রতিষ্ঠা করা একান্ত প্রয়োজন।’

‘আমি মনে করি, আমাদের পুলিশ তাদের পেশাদারিত্ব, সততা, আন্তরিকতা, যোগ্যতা, নিরপেক্ষতা, নিষ্ঠা, সাহসিকতা, দেশপ্রেম ও মানবিক মূল্যবোধ সমুন্নত রেখে জনগণের সেবা করবে।’

প্রধানমন্ত্রী সাহসী কাজের স্বীকৃতি হিসেবে ৩৫ পুলিশ সদস্যকে বাংলাদেশ পুলিশ মেডেল (বিপিএম-বীরত্ব) এবং ৬০ জনকে রাষ্ট্রপতি পুলিশ পদক (পিপিএম-বীরত্ব) দেন। এছাড়া, ৯৫ জন পুলিশ সদস্য বিপিএম সেবা পদক এবং ২১০ জন পিপিএম সেবা পদক পেয়েছেন।

এর আগে প্রধানমন্ত্রী অনুষ্ঠানস্থলে পৌঁছালে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল, জননিরাপত্তা বিভাগের সিনিয়র সচিব মো. মুস্তাফিজুর রহমান এবং পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) চৌধুরী আবদুল্লাহ আল-মামুন তাকে স্বাগত জানান। প্রধানমন্ত্রী খোলা জিপে চড়ে বাংলাদেশ পুলিশের কুচকাওয়াজ পরিদর্শন এবং সালাম গ্রহণ করেন।

Print Friendly, PDF & Email

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর