ধর্মকর্মে মন দিয়েছেন হ্যাপি, ভর্তি হয়েছেন একটি কওমি মাদরাসায়

: নাজনীন আক্তার হ্যাপি।  চলচ্চিত্র জগত থেকে নিজেকে গুটিয়ে নিয়েছেন বেশ আগেই।  ধর্মকর্মে মন দিয়েছেন। ভর্তি হয়েছেন মিরপুরের একটি কওমি মাদরাসায়।  কিছুদিন  আগে  হ্যাপির বিয়ের খবর প্রকাশ হয়। কিন্তু  পরেরদিন নিজের ফেসবুকে বিয়ের খবর অস্বীকার করে একটি পোস্ট দেন।   কিন্তু বিয়ের খবরটা ফেসবুকেই স্বীকার করলেন তবে কয়েকটা দিন পরে।

রাজধানীর রূপনগর আবাসিক এলাকায় নিজ বাসায়

১৭ অক্টোবর রাত ৯টার দিকে পারিবারিকভাবে বিয়ে হয় হ্যাপির। একটি গোপন সূত্র থেকে সংবাদটি পাওয়া গেলেঈও পরে হ্যাপির ছোটবোন খবরটি নিশ্চিত করে।  ছোটবোন পপি সেদিন বলেন, ‘আপুর সুন্নত তরিকায় বিয়ে সম্প্ন্ন হয়েছে।’ বর কি করেন এমন প্রশ্নের জবাবে পপি বলেন, আপাতত এটুকুই, আর কিছু বলা যাবে না।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক হ্যাপির পাশের বাসার এক ব্যক্তি জানান, হ্যাপি বিয়ে করেছেন এটা সত্য। প্রতিবেশীদের বাসায় আজ সকালে বিয়ের মিষ্টি পাঠিয়েছেন তিনি। রাতে তার বাসায় ঘরোয়া আয়োজনে অনুষ্ঠানও হয়েছে। কিন্তু ১৯ অক্টোবর হ্যাপি বিয়ের ঘটনাটি অস্বীকার করেন। কিন্তু  ২৫ অক্টোবর বিয়ের খবর স্বীকার করে ফেসবুকে বিবাহিত সম্পর্কের বিষয়টি আপডেট করেন।   এদিকে ৩০ অক্টোবর হ্যাপি নিজের ফেসবুকে তাঁর ছোটভাই ও স্বামীর মাথাকাটা ছবি আপলোড দিয়ে লিখেছেন, ‘মাশাআল্লাহ! আমার ভাইয়ের সাথে তার একমাত্র আপন দুলাভাই

Print Friendly, PDF & Email

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর