নারীর জন্য বিনিয়োগ বাড়লে দেশের উন্নয়ন ত্বরান্বিত হবে: ডেপুটি স্পিকার

নারীর জন্য যত বেশি বিনিয়োগ বাড়বে দেশের উন্নয়ন তত ত্বরান্বিত হবে বলে আশা প্রকাশ করেছেন জাতীয় সংসদের ডেপুটি স্পিকার মো. শামসুল হক টুকু। তিনি বলেছেন, নারীদের উন্নয়নে অভূতপূর্ব সাফল্য অর্জন করেছে বাংলাদেশ। পুরুষের সাথে সমানতালে নারীরা দেশের সার্বিক উন্নয়নে ভূমিকা রাখছে।

শনিবার (৯ মার্চ) জাতীয় প্রেস ক্লাবে আন্তর্জাতিক নারী দিবস উপলক্ষে ‘ইনভেস্ট ইন উইমেন এক্সেলারেট গ্রোথ’ শীর্ষক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন।

জাতীয় প্রেস ক্লাবের সভাপতি ও সংসদ সদস্য ফরিদা ইয়াসমিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন জাতীয় সংসদের হুইপ সানজিদা খানম ও জাতিসংঘের আবাসিক সমন্বয়কারী মিস গুইন লুইস। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তৃতা করেন জাতীয় প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক শ্যামল দত্ত।

অনুষ্ঠানে ডেপুটি স্পিকার বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বাংলাদেশের স্বাধীনতা অর্জনে নেতৃত্ব দিয়েছেন। তিনি দেশ স্বাধীন করে নারী উন্নয়নের ভীত রচনা করে দিয়েছেন।

আর বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য কন্যা বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নারীর উন্নয়নে ইতিহাস সৃষ্টি করেছেন।তিনি আরো বলেন, বর্তমান সরকার নারীর রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক ক্ষমতায়ন নিশ্চিত করেছে। সংসদে সরাসরি ও সংরক্ষিত আসনে আরো বেশি সংখ্যক নারীকে নির্বাচিত হওয়ার সুযোগ তৈরি করেছে। এছাড়া স্থানীয় সরকার ও প্রশাসনসহ দেশের সকল সেক্টরে নারীরা বড় মাত্রায় ভূমিকা রাখছেন।

নারীর ক্ষমতায়নে সরকারের পদক্ষেপ তুলে ধরে শামসুল হক টুকু বলেন, স্বাধীনতার পর দেশে ফিরেই জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ক্ষুধামুক্ত, দারিদ্রমুক্ত, নারী-পুরুষ সমতা তৈরি করে সোনার বাংলা গড়ার প্রত্যয় নিয়ে দেশ পরিচালনা শুরু করেন। দেশের উন্নয়নে নারীবান্ধব পরিকল্পনা গ্রহণের মাধ্যমে উন্নয়ন কৌশল প্রণয়ন করেন। ১৯৭২ সালে বঙ্গবন্ধুর দেওয়া দিক নির্দেশনার আলোকে নারী অধিকার প্রতিষ্ঠায় কাজ চলছে।

অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে ফরিদা ইয়াসমিন বলেন, জেন্ডার বাজেটে আরো বেশি বরাদ্দ প্রয়োজন। একইসঙ্গে প্রাপ্ত বাজেটের যথাযথ বাস্তবায়ন নিশ্চিত করতে হবে।

নারীর জন্য বিনিয়োগ সরকার ও পরিবার উভয়কেই করতে হবে। এক্ষেত্রে শুধু আর্থিক বিনিয়োগ নয়, মানসিক বিনিয়োগ করর আহ্বান জানান তিনি।

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর