,



করোনায় বলিউডে ক্ষতি ৮০০ কোটি

বাঙালী  কণ্ঠ ডেস্কঃ বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে পড়েছে মরণঘাতি করোনাভাইরাস। প্রতিদিনই কোভিড-১৯ ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বাড়ছে। সেই সঙ্গে আক্রান্ত বিনোদনের দুনিয়াও। হলিউড, বলিউড, টলিউড ও ঢালিউডে ইতোমধ্যে বহু ছবির শুটিং বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। স্থগিত করা হয়েছে অনেক ছবির মুক্তি। সেই সঙ্গে বন্ধ করে দেয়া হয়েছে সিনেমা হলগুলোও।

করোনাভাইরাস আতঙ্কে আগামী ৩১ মার্চ পর্যন্ত বন্ধ করে দেয়া হয়েছে ভারতের বেশ কয়েকটি রাজ্যের সিনেমা হল। যার মধ্যে রয়েছে সাড়ে তিন হাজার স্ক্রিন। সেই রাজ্যগুলোর তালিকায় রয়েছে মহারাষ্ট্র, দিল্লি, রাজস্থান, গুজরাট, বিহার, পাঞ্জাব ও পশ্চিমবঙ্গ।

গত রবিবার ইন্ডিয়ান মোশন পিকচার্স প্রোডিউসর্স অ্যাসোসিয়েশন, ফেডারেশন অব ওয়েস্টার্ন ইন্ডিয়া সিনে এমপ্লয়িজ এবং ইন্ডিয়ান ফিল্ম অ্যান্ড টেলিভিশন ডিরেক্টর্স অ্যাসোসিয়েশন-এর পক্ষ থেকে এক বৈঠক ডাকা হয়েছিল। সেখানেই সিনেমা হলগুলো বন্ধের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

করোনা আতঙ্কে এখন সাধারণ মানুষ যেখানে ঘর থেকে বেরোতে চাচ্ছেন না, সেখানে সিনেমা হলে গিয়ে ছবি দেখা তো অনেক দূরের কথা। তাই করোনার প্রভাব পড়েছে বলিউড ইন্ডাস্ট্রির উপরে। গত ৬ মার্চ মুক্তি পেয়েছে টাইগার শ্রফ ও শ্রদ্ধা কাপুরের ‘বাঘি থ্রি’। এরপর মুক্তি পেয়েছে ইরফান খানের ‘আংরেজি মিডিয়াম’। কিন্তু দুটি ছবির কোনোটাই ব্যবসা করতে পারেনি।

বক্স অফিস ইন্ডিয়ার মতে, মুক্তি পাওয়া ছবি মুখ থুবড়ে পড়া, বেশ কিছু ছবির মুক্তি আটকে থাকা এবং বহু ছবির শুটিং বন্ধ হওয়া- সব মিলিয়ে বলিউড ইন্ডাস্ট্রির ৮০০ কোটি টাকার মতো ক্ষতি হয়েছে। এমন অবস্থা দেখে চিন্তার ভাজ পড়েছে নির্মাতাদের কপালে। কতদিন এরকম পরিস্থিতি থাকবে, তাই নিয়ে চিন্তায় গোটা বলিউড।

Print Friendly, PDF & Email

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর