,



সকালের নাশতায় মাটি, দুপুরের খাবারে ইট-রুটি

বাঙালী কণ্ঠ নিউজঃ কমলেশ্বরের (৪৫) বয়স তখন ২৮ বছর। হঠাৎ একদিন শুরু হলো প্রচণ্ড দাঁতব্যথা। কোনো কিছুতেই হচ্ছিল না কাজ। একদিন লোকমুখে শুনলেন মাটি খেলে নাকি উপশম হবে ব্যথার। যেই শোনা, সেই কাজ। খাওয়া শুরু করলেন মাটি। পরে দাঁতব্যথা বন্ধ হলেও, যায়নি মাটি খাওয়ার অভ্যাস।

ভারতের উত্তরাখন্ড রাজ্যের হরিদ্বারের বাসিন্দা কমলেশ্বর। প্রতিদিন ঘুরে বেড়ান এক জায়গা থেকে আরেক জায়গায়। উদ্দেশ্য ভালো মাটি খোঁজা। তারপর সেই মাটি দিয়ে করেন সকালে নাশতা।

কমলেশ্বরের দুপুরের খাবার আরো অদ্ভুত। মধ্যাহ্নভোজে তিনি প্রথমে ইট গুঁড়ো করেন। তারপর কাদার দলার ওপর ইটের গুঁড়ো মেশান। তারপর রুটি দিয়ে আয়েশ করে খান সেই ইট মেশানো কাদা।

এই খাবার খেয়ে দিব্যি খুশি কমলেশ্বর। তিনি বলেন, ‘আমি কাদা ও ইট খেতে খুব ভালোবাসি। চাপাতি রুটির সঙ্গে খাবার জন্য এর থেকে ভালো আর কিছুই নেই। অন্য কিছুই আমার খিদে মেটাতে পারে না। এমনকি সবজি ও ডালও না।’

কমলেশ্বর আরো জানান, ১৭ বছর ধরে কাদা-ইট খেয়ে তাঁর শরীরে কোনো সমস্যা হয়নি। এমনকি তাঁর দাতের অবস্থা বেশ ভালো। দাঁতগুলো একঝলক দেখিয়ে দেন তিনি। যদিও তাঁর মুখে একটি দাঁত অনুপস্থিত।

Print Friendly, PDF & Email

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর